অঙ্গার। মুক্ত বাতাসের খোঁজে। LostModesty



চারপাশে কত কত মানুষ দেখি আমরা। একেকজনের খাদ্যাভ্যাস, আচার-ব্যবহার, পোশাক-পরিচ্ছদ, কথা বলার ভঙ্গি, চলার ধরণ সবকিছুতেই তো কত ভিন্নতা দেখতে পাই। রুচিতে দেখা যায় বৈচিত্র্য। এই বৈচিত্র‍্যময় রুচির ভিড়ে কুরুচির মানুষেরও কমতি নেই। অন্যান্য বিভিন্ন বিষয়ের সাথে সাথে যৌন বিষয়ক এরকম অনেক রুচি, কুরুচির কথা উঠে আসে।
.
এমনই এক কুরুচিপূর্ণ, বিকৃত মস্তিষ্কের মানুষের কথা উঠে এসেছে এই অডিও ক্লিপটিতে। যার বিকৃত মস্তিষ্কের কুরুচি গিয়ে ঠেকেছিল ‘মৃত নারীদেরকে সম্ভোগ করা’-তে। কতভাবেই না এই মানুষটি তার কুরুচিপূর্ণ ইচ্ছা পূরণ করেছে এবং সেই ইচ্ছা পূরণের জের ধরে বলি গিয়েছে কত নারীর প্রাণ ও ইজ্জত তার হিসেব মেলানো দায়। কীভাবে সে এমনতর কুরুচিপুর্ণ, বিকৃত মস্তিষ্কের হয়ে উঠল? কীসের তাড়ণায় সে এমন পাশবিক হয়ে উঠতে দ্বিধা করল না? কোন জিনিসটি তাকে নিয়ে গেল এমন ধ্বংসাত্মক কাজের দারপ্রান্তে? জানতে হলে শুনতে হবে- ‘অঙ্গার’- মুক্ত বাতাসের খোঁজে বইয়ের বাছাইকৃত অংশের অডিওক্লিপ।
.
এরকম কুরুচির মানুষ যে শুধু দূরদেশগুলোতেই আছে তা কিন্তু না। আমাদের চারপাশেও প্রতিনিয়ত এরকম মানুষের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। কে জানে, হয়ত আমরা নিজেরাই প্রচ্ছন্নভাবে বিশ্রী ও কুরুচিপূর্ণ যৌন আকাঙ্ক্ষা নিয়ে বেড়ে উঠছি! পত্রপত্রিকা খুললে যৌনতাকেন্দ্রিক যেসকল ভায়োলেন্সের খবর চোখে পড়ে তা আমাদের সামগ্রিকভাবে কুরুচিপূর্ণ যৌন উন্মাদ হয়ে ওঠার ঘটনাকেই সত্যায়িত করে। তাই, জানতে হবে নিজেকে নিয়ে এবং নিজের পাশের মানুষগুলো সম্পর্কেও। জ্ঞান রাখতে হবে নীল জগতের পর্দা আর বাস্তবতার ফারাক কোথায়; সেই বিষয়ে। আল্লাহ আমাদের এহেন গর্হিত কাজ থেকে এবং এরকম চিন্তা-চেতনা থেকেও বাঁচিয়ে রাখুন।
(আমিন)

source

Leave a Reply