মুসলিম দেশগুলোর শাসকদের বাস্তবতা



কাতার ক্রাইসিস। ট্রেন্ডিং টপিক। চলছে নানা জল্পনা-কল্পনা। ব্যাখ্যা বিশ্লেষণ। বরাবরের মতোই জনমত দুইভাগে বিভক্ত। আবেগ ও উত্তেজনা বহমান। একপক্ষ ‘খাদেমুল হারামাইন’ আল-সৌদ পরিবারের খেদমত নিয়ে উচ্চকন্ঠ। আরেকদল কাতারের মাঝে খুঁজে পাচ্ছেন মুসলিম উম্মাহর সামনে এগিয়ে যাওয়ার মডেল। এক দল ব্যস্ত কাতারের বিরুদ্ধে সাউদি-উপসাগরীয় জোটের অবস্থানের মধ্যে ইস্রাইলের চক্রান্ত খুজতে। অন্য দল ব্যস্ত কাতার যে সাফাউয়ি ইরানের এইজেন্ট তা প্রমানে। এক দল ব্যস্ত দ্বীনের প্রচারের আল-সৌদের অবদান তুলে ধরতে, আরেক দল ব্যস্ত বিভিন্ন দেশে ইসলামপন্থী দলগুলোর প্রতি কাতারের সমর্থনের কথা উপস্থাপনে।
.
কার কাছে আল-সৌদ হল উম্মাহর কান্ডারী। কারো কাছে কাতার হল উম্মাহর আশার আলো। তাহলে অ্যামেরিকার প্রতি আল-সৌদের প্রশ্নহীন আনুগত্য? কাতারের থাকা অ্যামেরিকান মিলিটারি বেইস? এগুলোর ব্যাখ্যা কী? আবু জাহলের সামরিক-অর্থনৈতিক মিত্র, ফিরাউনের অন্তরঙ্গ কী করে উম্মাহর কান্ডারী কিংবা আশার আলো হয়?
.
এই শাসকেরা যা যা করে সেটা কি মুসলিম উম্মাহর কথা বিবেচনায় করে? উম্মাহর প্রতি দরদ থেকে করে? উম্মাহ কতোটুকু লাভবান হয় আর তারা কতোটুকু? এইসব শাসকদের প্রকৃত বাস্তবতা কী?
.
সত্য চোখের সামনে থাকার পরও যদি আমরা দেখতে না চাই তাহলে দোষটা কার?
.
#KnowYourDeen

source

Leave a Reply