Hellfire S



মানুষ ভবিষ্যতের জন্য কাজ করতে আগ্রহী না। তবে ভবিষ্যতকে জানার অনেক আগ্রহ মানুষের। রাশিচক্র, জ্যোতিষী, পীর, মহাজাতক, মহাপাতক, রাস্তায় টিয়া পাখি নিয়ে বসে থাকা মোবাইল জ্যোতিষী, সবার কাছেই সাধ-সামর্থ্য অনুযায়ী আমরা ধরনা দেই।নিতান্ত আর্থিক কষ্টে থাকা লোকটাও বাসে পাশের যাত্রী ফেলে রাখা পত্রিকাটা হাতে নেয়ার পর রাশিচক্রে চোখ বুলিয়ে নিতে ভোলে না।
.
ভবিষ্যৎবাণীর অনেক ধরন হয়। আমি কি চাকরি পাবো? আমার কখন বিয়ে হবে? – থেকে শুরু করে কালকের রংপুর রাইডার্স বনাম চরফ্যাশন চামার্সের খেলায় কে জিতবে? অমুক কোম্পানির শেয়ারের দাম বাড়বে না কমবে, এবারের পিএসসি পরীক্ষার প্রশ্ন কি হবে (বিস্তারিত জানান) এসবই ভবিষ্যৎবাণীর মধ্যে পরে। অনেকে আবার প্যাকেজ ডিল নিয়ে বসে। আপনার চাকরি হবে না গ্রহের দোষ আছে – বলার পরই, জানিয় দিতে ভুলে না গ্রহ দোষ চিহ্নিতকরণের পাশাপাশি দোষ মোচনেও সে পারদর্শী।
.
নস্ট্রাডেইমাস টাইপ কিছু লোক আছে, যারা ফ্রি-তে গণ-ভবিষ্যৎবাণী করে। অমুক ঘটনার বারোশ’ বছর পর কোন এক বিজোড় সংখ্যক বছরের, ২৭ তম বৃহস্পতিবারের ৭৩.৭ ঘণ্টা আগে বৃষ্টির পর অমুক ঘটনা ঘটবে। মানুষ শত শত বছর পর তা নিয়ে মাতামাতি করে। আগ্রহ নিয়েই করে। ভবিষ্যৎ জানতে আমাদের আগ্রহের শেষ নেই। ভবিষ্যতের জন্য কোন প্রস্তুতি নেয়াতে সমস্যা।
.
.
একটা নিশ্চিত সত্য হল – প্রতিটি কথা, প্রতিটি সিদ্ধান্ত, প্রতিটি মাউস ক্লিক, প্রতিটি সীমালঙ্ঘনের জন্য আপনাকে জবাবদিহি করতে হবে। এমন একজনের সামনে দাঁড়িয়ে, যাকে যেনতেন ভাবে কিছু “বুঝ” দেয়া যাবে না। যার কাছ থেকে কিছুই লুকোনো যাবে না। এমন প্রশ্নকারীর সামনে দাঁড়াতে হবে যিনি প্রশ্নের আগেই তার উত্তর জানেন।
.
নিশ্চিত সত্য হল –আপনার আশেপাশের অধিকাংশ মানুষের চিরন্তন না হলেও কমপক্ষে নির্দিষ্ট একটা সময়ের জন্য গন্তব্য হতে যাচ্ছে জাহান্নাম। কথাটা হয়তো আপনার জন্যও সত্য।
.
হাজ্জায বিন ইউসুফের ব্যাপারে বলা হয়ে থাকে যে- সে একদিন সাইদ ইবন যুবাইরকে রাহিমাহুল্লাহ প্রশ্ন করলো – শুনলাম তুমি নাকি কখনোই হাসো না?
.
সাইদ ইবন যুবাইর বললেন – আমি কিভাবে হাসতে পারি যখন জাহান্নাম প্রজ্বলিত, দগ্ধ অবস্থায় আছে?
.
#KnowYourDeen

source

Leave a Reply